চারদফা দাবীতে সিলেট সরকারি/বেসরকারি পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
নিউজ শেয়ার করুনঃ

অমিত আচার্য্য, শিক্ষা সংবাদঃ- সারাদেশে কারিগরি শিক্ষার্থীরা গভীর আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। করোনা মহামারির কারনে গত প্রায় ১বছরের কাছাকাছি বন্ধ ছিলো দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তার ধারাবাহিকতায় দেশে বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট জমা দানের মাধ্যমে পরবর্তী শ্রেনীতে অধ্যয়নের সুযোগ করে দেয়া হয়।

সাধারণ বোর্ডের পাশাপাশি বন্ধ ছিলো কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও এমতাবস্থায় অচল হয়ে পড়েন প্রায়  ১৪ লক্ষের বেশি শিক্ষার্থী।
করোনার পর জনজীবন সচল হতে শুরু করলেই কারিগরি শিক্ষামন্ত্রনালয় থেকে ঘোষণা দেওয়া হয় আগামী ২রা ফেব্রুয়ারী থেকে শুরু হবে পর্ব সমাপনী পরীক্ষা।

পরিক্ষা রুটিন ঘোষণার পরপরই রাস্তায় নেমে আসেন কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন জেলার সরকারি/ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হাজারো শিক্ষার্থীরা প্রথমে, তারা দাবী জানান কারিগরি বোর্ডের এমন সিদ্ধান্ত অযুক্তিযুক্ত, কোনপ্রকার পাঠদান ছাড়াই পর্ব সমাপনী নেওয়া উচিত হবে না। আর এমন সময় হঠাৎ পরীক্ষা আয়োজন করলে ১বছর পিছিয়ে যাবেন কারিগরি বোর্ডের লাক্ষো শিক্ষার্থী।
দাবী আদায়ের লক্ষ্যে সিলেট সরকারি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট সাধারণ শিক্ষার্থীরা আয়োজন করেন বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভার।

৬দফা ৬দাবী নিয়ে আন্দোলনের ডাক দেন কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। পরবর্তীতে ৪দফা দাবিতে একে একে যুক্ত হতে থাকেন সরকার বেসরকারি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আওতাধীন বিভিন্ন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

৪ দফা দাবি সমূহঃ
১) কোন ভাবেই ১বছর ইয়ার লছ মানি না।
২) ১ম, ৩য়, ৫ম, ৭ম পর্বের ক্লাস অবিলম্বে শর্ট সিলেবাসের মাধ্যমে শুরু করতে হবে।  চলতি সেমিস্টার গুলো অটোপাশ অথবা একমাস ক্লাস করিয়ে শর্ট সিলেবাসের মাধ্যমে পরিক্ষা নিতে হবে।

৩) বেসরকারি পলিটেকনিক গুলোর সেমিস্টার ফি কমাতে হবে এবং সকল ধরনের অতিরিক্ত ফি বন্ধ করতে হবে
৪) ডুয়েট ছাড়া ও আরো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আসনের ব্যবস্থা করতে হবে।