ব্রিটেন ফেরত ফরাসির দেহে মিলল নতুন ধরনের করোনা

অমিত অমিত

আচার্য

প্রকাশিত: ১:৪৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০
নিউজ শেয়ার করুনঃ

ফ্রান্সে এবার কোভিড-এর নতুন ধরনের অস্তিত্ব মিলেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ফরাসি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, শনাক্ত হওয়া ব্যক্তি গেল ১৯ ডিসেম্বর লন্ডন থেকে ফেরেন। আক্রান্ত ফরাসি নাগরিক ফ্রান্সের সেন্ট্রালে থাকেন। 

বর্তমানে তিনি নিজ বাসায় সেল্ফ আইসোলেশনে রয়েছেন। লন্ডন ভ্রমণের আগে তার করোনা নেগেটিভ আসে। লন্ডন থেকে ফেরার পরই তাকে পরীক্ষা করানো হলে ২১ ডিসেম্বর নতুন উপসর্গ শনাক্ত করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তার শারীরিক অবস্থা এখনো ভালো।

ফ্রান্সে নতুন করে প্রতিদিন বহু মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ায় পানশালা, রেস্টুরেন্ট, সিনোমা হলসহ সংক্রমণের ঝুঁকিপূর্ণ জায়গাগুলো সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে ম্যাক্রোঁ সরকার। বিভিন্ন স্থানে জারি রয়েছে কারফিউ। বড়দিনে তা তুলে নেয়া হলেও নববর্ষে বহাল থাকবে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি ইংল্যান্ডে প্রথম করোনার নতুন ধরন বা স্ট্রেইন শনাক্ত হওয়ার পর জার্মানি, থাইল্যান্ডসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে এর আলামত পাওয়া গেছে। এদিকে শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) যুক্তরাজ্য থেকে ফেরা জাপান, ডেনমার্ক, অস্ট্রেলিয়া এবং নেদাল্যান্ডস-এর নাগরিকদের মধ্যেও একই ধরনের নমুনা পাওয়া গেছে।

যুক্তরাজ্যে নতুন করে যে করোনা ছড়াচ্ছে এতে স্পাইক প্রোটিনের জেনেটিক রূপান্তর হচ্ছে, ফলে ভাইরাস মানুষের মধ্যে দ্রুত ছড়াচ্ছে। নতুন ধরনের কোভিড ছড়িয়ে পড়ছে ৭০ শতাংশ দ্রুত গতিতে। ইংল্যান্ডের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলে নতুনভাবে ছড়ানো করোনার মধ্যে ১৭ টি নমুনার মিউটেশন পাওয়া গেছে যা ভাইরাসের আকারসহ আরো কিছু পরিবর্তন করেছে। নতুন স্ট্রেইনে জ্বর, শুকনো কাশি, স্বাদ গন্ধ চলে যাওয়া ছাড়াও আরও বেশ কিছু লক্ষণ যুক্ত হয়েছে। এতে ক্লান্তি, ক্ষুধামন্দা, মাথা ব্যথা, ডায়রিয়া, মানসিক বিভ্রান্তি, পেশী ব্যথা, স্কিনে র‌্যাশসহ ইত্যাদি লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিশ্বের অধিকাংশ দেশ যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ আপাতত বন্ধ রেখে পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। বিশেষজ্ঞরাও এ নিয়ে বিস্তর গবেষণা শুরু করেছেন।